Home / টিপস / যেকোনো পরীক্ষায় সাধারণ জ্ঞান নিয়ে বিপদে পড়তে হয়? পড়ুন সাধারণ জ্ঞান অর্জনের ১০টি সহজ উপায়

যেকোনো পরীক্ষায় সাধারণ জ্ঞান নিয়ে বিপদে পড়তে হয়? পড়ুন সাধারণ জ্ঞান অর্জনের ১০টি সহজ উপায়

সাধারণ জ্ঞান হচ্ছে সংস্কৃতি, সভ্যতা, সম্প্রদায়, সমাজ,  দেশ সংক্রান্ত  বিভিন্ন মাধ্যম থেকে  জানা মূল্যবান তথ্য। সাধারণ জ্ঞান কোনো একটি বিষয় সর্ম্পকিত বিশেষায়িত জ্ঞান নয়। বরং মানব সভ্যতা, বর্তমানে বিশ্ব, পরিবার স্বাস্থ্য, ফ্যাশন, দেশ নিয়ে নিয়ে সামগ্রিক জ্ঞানই হলো সাধারণ জ্ঞান। সকল বিষয়ে সাধারণ জ্ঞানের দখলদারিত্ব হতে কিছুটা সময় লাগে, একই সাথে বেশ কঠোর পরিশ্রমের প্রয়োজন। এছাড়া যেকোনো সমস্যার সমাধান, আত্মবিশ্বাস এবং গভীর চিন্তা চেতনার মাধ্যমে সাধারণ জ্ঞানের ভাণ্ডার সমৃদ্ধ হওয়া সম্ভব।

জ্ঞান শুধুমাত্র পড়াশোনার জন্যই প্রয়োজন তা নয় বরং একজন সমৃদ্ধ নাগরিক, একটি সুন্দর সমাজ গঠন করা, একই সাথে নিজের মানসিক এবং জ্ঞানগত বৃদ্ধির জন্য সাধারণ জ্ঞানের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। নিঃসন্দেহে সাধারণ জ্ঞান আপনাকে বাকি সবার থেকে আলাদা একটি পরিচয় দান করবে। আপনি যখন নানান বিষয়ে দখলদারিত্ব থাকবে সেই বিষয় নিয়ে আপনার খুঁটিনাটি সকল ধরনের জ্ঞান থাকবে আপনি সহজেই যেকোনো পরিস্থিতি, সেই সাথে চাকরি বা সমাজের যেকোনো ধরনের গঠনমূলক সিদ্ধান্তে নিজের অবদান রাখতে পারবেন।

খুব সাধারণভাবে সাধারণ জ্ঞান আমাদের জ্ঞানের ভান্ডারকে সমৃদ্ধ করে কিন্তু সাধারণ জ্ঞান শুধু জ্ঞান ভান্ডারকে সমৃদ্ধ করে তা নয় বরং চিন্তা-চেতনার বিকাশ ঘটায়। কারণ আপনি যখন একটি বিষয় সম্পর্কে খুব ছোট একটি তথ্য জানবেন তা নিয়ে বিশদভাবে ভাবনার একটি মাধ্যম হিসেবে কাজ করে সাধারণ জ্ঞান। আর তাই নিঃসন্দেহে সাধারণ জ্ঞান আপনাকে যেকোনো ধরনের বড় চিন্তা-চেতনার জায়গাকে অনেক বেশী সমৃদ্ধ করে দেয়। একই সাথে নানান বিষয়ে সামগ্রিক জ্ঞান আপনাকে যেকোন বিষয় নিয়ে আলোচনা বা যেকোন বিষয় নিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ এর মতো বড় কাজগুলো অত্যন্ত বিবেকসম্পন্ন জায়গা থেকে সম্পন্ন করতে সহায়তা করে।

জেনে নিতে পারেন সাধারণ জ্ঞান অর্জনের কিছু সহজ পন্থা।

১. নিয়মিত বই পড়া

যেকোনো জ্ঞানার্জনের ভিত্তি হলো নিয়মিত বই পড়া। বই পড়ার জন্য কোনো ধরনের নির্দিষ্ট বিষয় নির্বাচন করার প্রয়োজন নেই। বরং সব ধরনের বই পড়তে পারেন যাতে করে সকল ক্ষেত্রে আপনি সাধারণ জ্ঞান অর্জন করতে পারেন।বই পড়ার জন্য একটি রুটিন তৈরি করতে পারেন, দিনের একটি নির্দিষ্ট সময় বই পড়ার জন্য বরাদ্দ রাখতে পারেন। এতে নিশ্চিন্তে প্রতিদিন অসংখ্য নিত্যনতুন জ্ঞানের সাথে পরিচিতি লাভ করতে পারবেন।

source: chobibazar.com

এছাড়া পাবলিক লাইব্রেরিতে মেম্বারশীপ করিয়ে নিতে পারেন। যাতে করে খুব সহজেই হাজার হাজার বই এর সন্ধান পেতে পারেন একই সাথে সহজে পড়তে পারেন। এছাড়া অনলাইনে পিডিএফ নামিয়ে নিতে পারেন। আর এভাবেই খুব সহজেই হাতের কাছে ঘরে বসে প্রতিদিন নিত্য নতুন বই এবং নিত্যনতুন সাধারণ জ্ঞানের সাথে নিজের সখ্যতা গড়ে তুলতে পারবেন।

২. সংবাদপত্র পড়ুন নিয়মিত

সংবাদপত্র নিঃসন্দেহে সবচেয়ে উত্তম মাধ্যম। স্থানীয়, আঞ্চলিক, জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক বিষয়ে নিত্যনতুন জ্ঞান অর্জন করার জন্য সংবাদপত্র হলো সহজ মাধ্যম। সংবাদপত্রে নিয়মিত  রাজনীতি, ফ্যাশন, খেলাধুলা, জাতীয়,আন্তর্জাতিক নানান বিষয় নিয়ে সংবাদ থাকে। আর এই সহজ একটি মাধ্যম থেকে একই সাথে অনেক বিষয়ে আপনি জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন। প্রতিদিন সকালে সংবাদপত্র পড়ার অভ্যাসটা গড়ে তুলুন। ঘুম থেকে উঠেই বসে পড়ুন সংবাদপত্র নিয়ে। এত সহজ এবং মূল্যবান মাধ্যম টাকে কোনোভাবেই এড়িয়ে যাবেন না। কেননা এত সহজে এবং এত কম খরচে এত অসংখ্য জ্ঞান পাবার অন্যতম মাধ্যম হচ্ছে সংবাদপত্র।

source: chobibazar.com

এছাড়াও আপনি যদি আপনার ডিজিটাল ডিভাইসে সংবাদ পড়তে চান সেক্ষেত্রে জনপ্রিয় সংবাদ চ্যানেলগুলোকে সাবস্ক্রাইব করে রাখতে পারেন। যাতে প্রতিদিনের সংবাদগুলো খুব সহজেই আপনার ডিজিটাল ডিভাইসের মাধ্যমে আপনি জেনে নিতে পারেন।

৩. ম্যাগাজিন পড়ুন

যখন যেখানেই যান হতে পারে রাস্তা দিয়ে হেটে যাচ্ছেন বা ডাক্তারের চেম্বারে অপেক্ষা করছেন অথবা কোন অফিসে যাচ্ছেন প্রত্যেকটি জায়গাতেই আপনি অসংখ্য ম্যাগাজিন পাবেন। কখনোই ম্যাগাজিন পড়ার এই সুযোগকে হাতছাড়া করবেন না। কেননা ম্যাগাজিনে গুরুত্বপূর্ণ অনেক সংবাদ অনেক তথ্য থাকে যা আপনার জ্ঞান ভান্ডারকে সমৃদ্ধ করতে একই সাথে বিভিন্ন বিষয়ের সাধারণ জ্ঞান অর্জন করতে সহায়তা করবে। আর তাই ম্যাগাজিন পড়ার এই অভ্যাসটি কে কখনো হাতছাড়া করবেন না।

source: chobibazar.com

যখন যেখানে ম্যাগাজিন পাবেন সেই ম্যাগাজিনটি হাতে তুলে নিয়ে দেখবেন এবং গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো পড়ার চেষ্টা করবেন। যে সমস্ত জায়গায় গিয়ে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে হচ্ছে সে জায়গাগুলোতে বসে সময় নষ্ট না করে অথবা বাসে করে কোথাও যাওয়ার সময় সময় নষ্ট না করে নিয়মিত ম্যাগাজিন পড়তে পারেন। আর তাই ম্যাগাজিন পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

৪. বন্ধু কলিগ সকলের সাথে যোগাযোগ বৃদ্ধি করুন

যত মানুষের সাথে আপনি যোগাযোগ বৃদ্ধি করবেন ততো নিত্যনতুন মেধার সাথে পরিচিত হবেন। আর তাই নিয়মিত বন্ধু,কলিগদেরবসাথে সময় কাটান। বিভিন্ন সামগ্রিক বিষয় নিয়ে কথা বলুন। যদিও আমরা তথ্যবহুল আলোচনার চেয়ে সাধারণ আলোচনা করতে বেশি পছন্দ করি তবুও নিজেদের মধ্যে এই অভ্যাসটি গড়ে তুলুন যে নিয়মিত একসাথে হলে আপনারা নিজেদের মাঝে নতুন কোন শিক্ষণীয় বিষয় বা সাম্প্রতিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করবেন।

source: chobibazar.com

এভাবে একে অপরের জ্ঞান যখন একজন আরেকজনকে শেয়ার করবেন তখন অন্য জনের জ্ঞানটি আপনার নিত্যনতুন সাধারণ জ্ঞান অর্জনে সহায়ক হবে।

৫. সেমিনার এবং কনফারেন্সে অংশগ্রহণ করুন

সেমিনারে আলোচিত যেকোনো একটি বিষয়ে জ্ঞানগর্ভ আলোচনা আপনাকে সেই বিষয়ে সাধারণ জ্ঞান অর্জনে অনেক সহায়তা করবে। যখন আপনি কোন একটি সেমিনার বা কনফারেন্সে অংশগ্রহণ করেছেন তখন মনোযোগ সহকারে এক্সপার্টরা কী বলছেন তা জানার এবং বোঝার চেষ্টা করুন। একই সাথে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো নোট করে নিন। কেননা একটি সেমিনার এবং কনফারেন্সে সসাধারণত একটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয় কিন্তু একটি বিষয় নিয়ে বিশদ আলোচনা অনেক সময় আপনি ভুলে যেতে পারেন। আর তাই নিয়মিত সেমিনার এবং কনফারেন্সে অংশগ্রহণ করুন। এক্সপার্টদের নির্ধারিত বিষয় নিয়ে জ্ঞানগর্ভ আলোচনা আপনার সাধারণ জ্ঞান অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

৬. বিভিন্ন সংগঠন এবং সামাজিক দলগুলোতে যোগদান করুন

বিভিন্ন সংগঠন এবং সামাজিক দলগুলোতে যোগদান করলে আপনার যে বিষয়গুলোতে আগ্রহ সেরকম সমমনা অনেক মানুষকে খুজে পাবেন। আর তাদের সাথে আপনার অর্জিত জ্ঞান আর তাদের কাছ থেকে শেখা জ্ঞানগুলো  আপনাকে সাধারণ জ্ঞান অর্জনে অনেক বেশি সহায়তা করবে। কেননা আপনি যখন নিজের আগ্রহে আপনার পছন্দের বিষয় নিয়ে সমমনা মানুষদের সাথে আলোচনা করবেন নিঃসন্দেহে সেই আলোচনা থেকে উভয় পক্ষই অনেক জ্ঞান অর্জন করতে পারবে।

৭. টেলিভিশন দেখুন

টেলিভিশন দেখে জ্ঞান অর্জনের বিষয়টি নির্ভর করে আপনি  টিভিতে কোন বিষয়গুলো দেখছেন। অর্থাৎ টিভি দেখার জন্য আপনি কিছু সময় নির্ধারিত রাখতে পারেন। সে সময়ে সেই সমস্ত চ্যানেলগুলো দেখুন যেখান থেকে আপনি নিত্যনতুন অনেক কিছু জানতে এবং শিখতে পারবেন।

source: chobibazar.com

যেমন সংবাদ চ্যানেল হিসেবে CNN অথবা National Geography অথবা ফুড নেটওয়ার্ক এর মত চ্যানেলগুলো নিঃসন্দেহে আপনার জ্ঞানের ভান্ডার কে করবে সমৃদ্ধ।

৮. সার্চ ইঞ্জিনের সদ্ব্যবহার করুন

যেকোনো ধরনের প্রশ্নের উত্তর খুঁজে পেতে গুগল, ইয়াহু, বা বিং ব্যবহার করতে পারেন। নিয়মিত সার্চ ইঞ্জিনে যখন আপনি শেখার জন্য নানান বিষয় নিয়ে ঘাটাঘাটি করবেন তখন যেকোন বিষয় নিয়ে আপনি অনেক তথ্য খুঁজে পাবেন একই সাথে অনেক কিছু শিখতে পারবেন। আর তাই বলা যেতে পারে আপনার সাধারণ জ্ঞান সমৃদ্ধ করতে সার্চ ইঞ্জিন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

৯. বিভিন্ন ধরনের অনলাইন কোর্স করতে পারেন

বর্তমানে অনলাইনে ফ্রি তে বিভিন্ন ধরনের অনলাইন কোর্স রয়েছে।  সেই কোর্সগুলোতে যোগদান করে নিত্যনতুন অনেক বিষয় সম্পর্কে আপনি অবগত হতে পারবেন। আপনার সাধারণ জ্ঞান অর্জনে অনলাইন কোর্স বিশাল ভূমিকা রাখতে পারে। কেননা অনলাইন কোর্সে যেকোনো বিষয় নিয়ে বিশাল পরিসরে সাজানল হয়ে থাকে। আর তাই আপনার পছন্দের বিষয় নিয়ে অনলাইন বিভিন্ন কোর্স সাধারণ জ্ঞান অর্জনে সহায়তা করবে।

১০. নিয়মিত ক্লাস এবং শিক্ষকদের সাথে যোগাযোগ রাখুন

আমরা কিন্তু আমাদের পড়ার বিষয় থেকেও প্রতিনিয়ত সাধারণ জ্ঞান অর্জন করছি। আর সে জন্য নিয়মিত ক্লাস থেকে আপনি অনেক নতুন বিষয় সম্পর্কে অবগত হতে পারবেন। এছাড়া যেকোনো বিষয় নিয়ে নিয়মিত শিক্ষকদের সাথে আলোচনা এবং যোগাযোগ আপনার সে বিষয়ে জ্ঞান অর্জনে অনেক বেশি সহায়তা করে।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *