Home / নোটিশ / এনটিআরসিএ’র গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

এনটিআরসিএ’র গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

এনটিআরসিএ’র গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

 

বিএড ছাড়াই মাদরাসায় কৃষি বিষয়ে সুপারিশপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকদের যোগদান করানোর জন্য গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) এ সংক্রান্ত গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়।

 

 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ৩১ মার্চ মাদরাসার এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামোর সংশোধনী জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ। এ সংশোধনী অনুযায়ী মাদরাসায় কৃষি বিষয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগে বিএড লাগবে না বলে বলা হয়েছে। তাই মাদরাসায় কৃষি বিষয়ে সহকারী শিক্ষক পদে সুপারিশ প্রাপ্তদের নিয়োগ সংশোধিত নিয়োগ যোগ্যতা প্রযোজ্য হবে।

 

 

এনটিআরসিএর সুপারিশ পেয়েও বিএড ডিগ্রি না থাকায় নিয়োগ নিয়ে দ্বিধায় ছিলেন কৃষি বিষয়ে সহকারী শিক্ষক পদে সুপারিশপ্রাপ্তরা। গতবছর জারি করা মাদরাসা এমপিও নীতিমালা এবং স্কুল-কলেজ, ব্যবসায়-ব্যবস্থাপনা ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালার কয়েকটি বিষয় অসামঞ্জস্য ছিল। তাই মাদরাসার এমপিও নীতিমালা সংশোধনের উদ্যোগ নেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সংশোধন শেষে তা পরিপত্র জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

 

আরও পড়ুন>>>সহকারী শিক্ষক নিয়োগ ২০১৮’ পরীক্ষার প্রবেশপত্র ও সিলেবাস

আরও পড়ুন>>> প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে রইল না আর কোনও বাধা

 

কর্মকর্তারা গণমাধ্যমকে জানান, গতবছর প্রকাশিত মাদরাসার এমপিও নীতিমালা ও জনবল কাঠামোতে কৃষি বিষয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পেতে বিএডসহ কৃষি সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিএসসি পাস বা সম্মান ডিগ্রি অথবা বিএডসহ কৃষি ডিপ্লোমা বা সমমানের ডিগ্রি থাকতে হবে বলে বলা হয়েছে। কিন্তু গতবছর প্রকাশিত বেসরকারি স্কুল-কলেজের এমপিও নীতিমালায় কৃষি বিষয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগে কৃষি সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিএসসি পাস বা সম্মান ডিগ্রি অথবা কৃষি ডিপ্লোমা বা সমমানের ডিগ্রি থাকার কথা বলা থাকলেও বিএড ডিগ্রির কথা উল্লেখ করা হয়নি।

 

 

আরও পড়ুন>>> 15th NTRCA Exam Date 2019 (admit card & venue)

আরও পড়ুন>>> ১৫ তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার সাজেশন

 

বেসরকারি স্কুল ও মাদরাসার কৃষি বিষয়ের সহকারী শিক্ষক পদের বেতন স্কেল একই। দুই পদের বেতনে গ্রেড ১০ হলেও নীতিমালায় যোগ্যতা ভিন্ন থাকায় প্রশ্ন ওঠে বিভিন্ন মহলে। এ বিষয়গুলো সংশোধনের উদ্যোগ নেয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। নীতিমালা সংশোধনের বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রীকে অবহিত করা হলে তিনি সম্মতি জানান।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *