Home / চাকুরীর প্রস্তুতি / প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় জ্যামিতির যে প্রশ্নগুলো বার বার

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় জ্যামিতির যে প্রশ্নগুলো বার বার

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় জ্যামিতির যে প্রশ্নগুলো বার বার

 

১) প্রশ্ন: ২ সমকোণ থেকে বড় কিন্তু ৪ সমকোণ থেকে ছোট কোণ–
উত্তর: প্রবৃদ্ধ কোণ।
(২) প্রশ্ন: স্পর্শ বিন্দুগামী ব্যাসার্ধ এবং স্পর্শকের অন্তর্ভুক্ত কোণ–
উত্তর: এক সমকোণ।
(৩) প্রশ্ন: ২টি বৃত্ত যদি পরস্পর স্পর্শ করে তবে কেন্দ্র থেকে স্পর্শ বিন্দুগামী
সরল রেখা দুটির অন্তর্ভুক্ত কোণ–
উত্তর: সরল কোণ।
(৪) প্রশ্ন: যে সামন্তরিকের সব বাহু সমান কিন্তু কোণগুলো অসমান–
উত্তর: রম্বস।

(৫) প্রশ্ন: বৃত্তস্থ সামন্তরিক একটি–
উত্তর: আয়তক্ষেত্র।
(৬) প্রশ্ন: একটি সরলরেখার উপর অংকিত বর্গ ওই সরলরেখার অর্ধেকের উপর
অংকিত বর্গের–
উত্তর: চারগুণ।

(৭) প্রশ্ন: কোন ত্রিভুজের তিন কোণের দ্বিখণ্ডকগুলো যে বিন্দুতে ছেদ করে
তাকে বলে–
উত্তর: আন্তঃকেন্দ্র।
(৮) প্রশ্ন: কোন ত্রিভুজের মধ্যমাগুলো যে বিন্দুতে ছেদ করে তাকে বলে–
উত্তর: ভরকেন্দ্র।
(৯) প্রশ্ন: ত্রিভুজের বাহুগুলোর লম্বদ্বিখণ্ডক যে বিন্দুতে মিলিত হয় তাকে ওই
ত্রিভুজের–
উত্তর: পরিকেন্দ্র বলে।
(১০) প্রশ্ন: ত্রিভুজের ভরকেন্দ্র প্রত্যেক মধ্যমাকে অন্তবিভক্ত ১০. প্রশ্ন:
ত্রিভুজের ভরকেন্দ্র প্রত্যেক মধ্যমাকে অন্তবিভক্ত করে–
উত্তর: ২:১ অনুপাতে।
(১১) প্রশ্ন: অতিভুজের বিপরীতে থাকে–
উত্তর: সমকোণ।
(১২) প্রশ্ন: ত্রিভুজের শিরঃকোণের সমদ্বিখণ্ডিত রেখা ভূমিকে
সমদ্বিখণ্ডিত করলে ত্রিভুজটি–
উত্তর: সমবাহু।
(১৩) প্রশ্ন: ত্রিভুজের একটি বাহু বর্ধিত করলে বহিঃস্থ কোণটি বিপরীত
অন্তঃস্থ কোণদ্বয়ের সমষ্টির–
উত্তর: সমান হবে।
(১৪) প্রশ্ন: ত্রিভুজের যে কোন দুই বাহুর মধ্যবিন্দুর সংযোজক সরল রেখা তৃতীয়
বাহুর–
উত্তর: অর্ধেক।
(প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ Analysis)

(১৫) প্রশ্ন: ত্রিভুজের দুটি কোণের সমষ্টি এক সমকোণ হলে তাদের একটিকে
অপরটির–
উত্তর: পূরক কোণ বলে।
(১৬) প্রশ্ন: কোন ত্রিভুজের একটি বাহু উভয় দিকে বর্ধিত করলে উৎপন্ন বহিঃস্থ
কোণগুলো পরস্পর সমান হলে ত্রিভুজটি– উত্তর: সমদ্বিবাহু।
(১৭) প্রশ্ন: তিন কোণ দেওয়া থাকলে যে সব ত্রিভুজ আঁকা যায় তাদের বলে–
উত্তর: সদৃশ ত্রিভুজ।
(১৮) প্রশ্ন: সুষম বাহুভুজের একটি অন্তঃকোণ ১৩৫° হলে বাহুর সংখ্যা–
উত্তর: ৮টি।
(১৯) প্রশ্ন: একটি সুষম বহুভুজের বহিঃস্থ কোণ ৪৫° হলে বাহুর সংখ্যা–
উত্তর: ৮টি।
(২০) প্রশ্ন: একটি বহুভুজের বাহুর সংখ্যা ৬টি হলে অন্তঃকোণগুলোর সমষ্টি–
উত্তর: ৮ সমকোণ।
(২১) একটি পঞ্চভুজের সমষ্টি?
– ৬ সমকোণ
(২২) একটি সুষম ষড়ভুজের অন্ত:কোণগুলোর সমষ্টি
– ৭২০ ডিগ্রি
(২৩) বৃত্তের ব্যাস তিনগুন বৃদ্ধি পেলে ক্ষেত্রফল বৃদ্ধি পায়
– ৯গুণ

(২৪) কোন ত্রিভুজের বাহুগুলোর লম্বদ্বিখন্ড যে বিন্দুতে ছেদ করে তাকে বলে
– অন্ত:কেন্দ্র
(২৫) স্পর্শবিন্দুগামী ব্যাসার্ধ এবং স্পর্শকের অন্তর্ভুক্ত কোণ–
– ৯০ ডিগ্রী
(২৬) তিন কোণ দেওয়া থাকলে যে সকল ত্রিভুজ আঁকা যায় তাদের বলে
– সদৃশ ত্রিভুজ
(২৭) ত্রিভুজের যে কোনো বাহুকে উভয়দিকে বর্ধিত করলে উৎপন্ন বহিঃস্থ
কোণদ্বয়ের সমষ্টি
– দুই সমকোণ অপেক্ষা বৃহত্তম

(২৮) কোন ত্রিভুজের একটি বাহু উভয় দিকে বর্ধিত করায় উৎপন্ন বহিঃস্থ
কোণগুলি সমান হলে , ত্রিভুজটি
– সমদ্বিবাহু
(২৯) ২৫৩ ডিগ্রি কোণকে কী কোণ বলে ?
– প্রবৃদ্ধ কোণ
(৩০) একটি সরলরেখার সাথে আর একটি রেখাংশ মিলিত হয়ে যে দু,টি
সন্নিহিত কোণ উৎপন্ন হয় তাদের সমষ্টি
– ১৮০ ডিগ্রি
*”প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ Analysis” বইয়ের সৌজন্যে-
(৩১) জ্যা’ শব্দের অর্থ কি?
– ভূমি
(৩২) দুটি সন্নিহিত কোণের সমষ্টি দুই সমকোণ হলে একটিকে অপরটির কি বলে?
– সম্পূরক কোণ

(৩৩) একটি সরলরেখার সাথে অপর একটি রেখাংশ মিলিত যে দুটি সন্নিহিত
কোণ উৎপন্ন হয়, তাদের সমষ্টি হবে
– দুই সমকোণ(১৮০°)
(৩৪)
– 65°
(৩৫) দুটি পূরক কোণের সমষ্টি কত?
– ৯০°
(৩৬) সম্পূরক কোণের মান কত?
– ১৮০
(৩৭ সরল কোণের মান কত?
– ১৮০ ডিগ্রি
.
(৩৮ কোন ত্রিভুজের তিনটি বাহুকে বর্ধিত করলে উৎপন্ন বহিঃস্থ কোণ
তিনটির সমষ্টি
– ৩৬০ ডিগ্রী
(৩৯) সমকোণী ত্রিভুজের সমকোণ সংলগ্ন বাহুদ্বয় যথাক্রমে ৩,৪ সেমি হলে,
অতিভুজের মান কত?
– ৫ সে.মি
*”প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ Analysis” বইয়ের সৌজন্যে-
(৪০) সামন্তরিকের বিপরীত কোণেরঅর্ন্তদ্বিখন্ডকদ্বয়
– পরস্পর সমান্তরাল

(৪১) একটি বর্গক্ষেত্রের এক বাহু অপর একটি বর্গক্ষেত্রের পরিসীমার সমান
হলে , বর্গক্ষেত্র দু.টির কর্ণের অনুপাত কত?
– ৪:১
(৪২) রম্বসের কর্ণদ্বয় পরস্পরকে সমকোণে সমদ্বিকন্ডিত করলে তাদের
অন্তর্ভুক্ত কোণ
– ৯০ ডিগ্রী
(৪৩) বৃত্তের পরিধির যেকোন অংশকে বলা হয়
– চাপ
(৪৪) পরিধির যেকোন দুই বিন্দুর সংযোগ সরলরেখাকে বলা হয়
– জ্যা( বৃত্তের ব্যাস হচ্ছে বৃত্তের বৃহত্তম জ্যা)
(৪৫) বৃত্তের কেন্দ্রগামী সকল জ্যা-ই
– ব্যাস
(৪৬) বৃত্তের বৃহত্তম জ্যা হলো- বৃত্তের ব্যাস
(৪৭) কেন্দ্র থেকে পরিধি পর্যন্ত দূরত্বকে বলা হয়
– ব্যাসার্ধ
(৪৮) অর্ধবৃত্তস্থ কোণ- ১ সমকোণ বা ৯০ ডিগ্রি
(৪৯) বৃত্তের কেন্দ্রস্থ কোণ পরিধিস্থ কোণের- দ্বিগুণ।
(৫০) বৃত্তের পরিধিস্থ কোণ, কেন্দ্রস্থ কোণের অর্ধেক।

 

বিঃদ্রঃপরবর্তি পোষ্টগুলো পড়তে চাইলে আমাকে ফ্রেন্ড রিকুয়েষ্ট দিয়ে
আপনার বন্ধুত্বের তালিকায় যুক্ত করুন অথবা আমার আইডি ফলো করে রাখুন
তাহলে আমার দেয়া সকল পোষ্টগুলো আপনার কাছে অটোমেটিকলি পৌছে
যাবে।

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করুন